ঘুড়ে দাড়িয়েছে জিম্বাবুয়ে, ৪১ ওভার শেষে দেখুন স্কোর | পড়ুন বিস্তারিত ...

ঘুড়ে দাড়িয়েছে জিম্বাবুয়ে, ৪১ ওভার শেষে দেখুন স্কোর

ভাগ্যেটা বেশ ভালোই বলা চলে মাসাকাদজার।আরিফুল হকের সেই ডেলিভারিটায় মাহমুদউল্লাহ রিভিউ নিলেই হয়তো তখন মাঠ ছাড়তে হতো মাসাকাদজাকে! ম্যাচের ১২ তম ওভারের আরিফুলের তৃতীয় বলটি সরাসরি আঘাত হানে মাসাকাদজার প্যাডে। জোড়ালো লেগ বিফোরের আবেদন করলেও আম্পায়ার সাড়া দেননি। তখনও বাংলাদেশের সুযোগ ছিল একটি রিভিউ নেওয়ার কিন্তু। ম্যাচের শুরুতেই একটি রিভিউ হারিয়ে ২য় রিভিউটাও এত তাড়াতাড়ি খরচ করার সাহস করেননি মাহমুদউল্লাহ।

কবিরাজ : তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদিক ঔষধের দ্বারা নারী- পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – খিলগাঁও, ঢাকাঃ। মোবাইল : ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিলো জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবুয়ের শুরুটা ভালোই ছিল। দুই ওপেনার হ্যামিল্টন মাসাকাদজা আর ব্রায়ান চারি মিলে সত্যিকার টেস্ট খেলার দিকেই মনযোগ দিয়েছিলেন। আবু জায়েদ রাহি এবং তাইজুল ইসলামের বল প্রথম থেকেই টার্ন করা শুরু করেছিল। ক্রিকইনফোর কনেমন্টারিতেই খেলা শুরুর আগে বলা হয়েছিল, বল টার্ন করার সম্ভাবনা বেশি।

সে কারণেই শুরু থেকে বিধ্বংসী হয়ে ওঠার চেষ্টা আবু জায়েদ আর তাইজুল ইসলামের। আবু জায়েদের একটি বলে হ্যামিল্টন মাসাকাদজা পরাস্ত হলে আউটের আবেদন করে বাংলাদেশ দলের ফিল্ডাররা। পরে রিভিউও নিয়েছিলেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। যদিও তখন দেখা গেলো বল ব্যাটের প্রান্ত ছুঁয়েছিল। ফলে নট আউট।

তবে মাসাকাদজা আর চারি জুটিকে খুব বেশিদুর এগুতে দিলেন না তাইজুল ইসলাম। ইনিংসের ১১তম ওভারে এসে ৩৫ রানের জুটিটা ভেঙে দিলেন তিনি। সরাসরি বোল্ড করলেন ব্রায়ান চারিকে। খুব বাজেভাবে স্লগ করতে গিয়েছিলেন চারি। বল ব্যাট মিস করে সোজা মিডল স্ট্যাম্প ভেঙে দেয়। বলা যায়, তাইজুলকে উইকেটটা উপহারই দিয়ে আসলেন ব্রায়ান চারি।

ওয়ানডাউনে ব্যাট করতে নামলেন জিম্বাবুয়ের নির্ভরযোগ্য ব্যাটনসন ব্রেন্ডন টেলর। ওয়ানডে সিরিজে দারুণ ব্যাটিং করেছিলেন তিনি। এ কারণে হ্যামিল্টন মাসাকাদজার সঙ্গে তার জুটিটা ভালোই হবে- এটাই কাম্য ছিল জিম্বাবুইয়ানদের। কিন্তু তাইজুলের ঘূর্ণির কাছে আবারও পরাস্ত হতে হলো জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং লাইনআপকে।

মাসাকাদজার সঙ্গে মাত্র ১২ রানের জুটি গড়েন টেলর। এরই মধ্যে ইনিংসের ১৭তম ওভারের দ্বিতীয় বলটিকে ফরোয়ার্ড ডিফেন্স করতে চেয়েছিলেন টেলর। কিন্তু শট লেগে দাঁড়ানো নাজমুল হোসেন শান্ত মাটি কামড়ানো শটটি তালুবন্দী করে ফেলেন। আম্পায়ার আউট দিলেও কিছুটা সংশয় ছিল টেলরের মনে। টিভি রিপ্লেতে দেখা গেলো সত্যি সত্যি আউট। দুর্দান্ত বোলিং করলেন তাইজুল। ক্যাচটাও ছিল দুর্দান্ত। ৬ রান করে বিদায় নিলেন ব্রেন্ডন টেলর।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ব্যাটিংয়ে নেমে ৪১ ওভার শেষে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ৩ উইকেট হারিয়ে ১১৩ রান। রাজা ৭ ও উইলিয়ামস ৩৬ রান করে ব্যাট করছেন। চারি ১২ ও ৬ রান করে তাইজুলের বলে আউট হয়েছেন। মাসাকাদজা ৫২ রান করে রাহির বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েছেন। বাংলাদেশ একাদশ : লিটন দাস, ইমরুল কায়েস, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), আরিফুল হক, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, নাজমুল ইসলাম অপু এবং আবু জায়েদ রাহী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*