করণ জোহরে বিরুদ্ধে আনুষ্কার যৌন হেনস্থার অভিযোগ! | পড়ুন বিস্তারিত ...

করণ জোহরে বিরুদ্ধে আনুষ্কার যৌন হেনস্থার অভিযোগ!

সবার সামনে ভয়ঙ্কর অভিযোগ আনলেন আনুষ্কা শর্মা। তিনি যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছিলেন। করণ জোহরের দিকেই আঙুল তুলেছেন ‘রাব নে বানা ডে জোরি’ খ্যাত এই নায়িকা।

কবিরাজতপন দেব । নারী-পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ওষুধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

সবার সামনে বিখ্যাত পরিচালকের মুখোশ খুলে দিলেন জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী! আনুষ্কা যাঁর বিরুদ্ধে এমন ভয়ঙ্কর অভিযোগ আনলেন, তাঁর তো তখন থরহরি কম্পমান অবস্থা। মুখ শুকিয়ে যাওয়ার জোগাড়। এ তো তাঁকে কলঙ্কিত করার প্রয়াসও বটে। তিনিও তো নামকরা একজন মানুষ। গোটা ভারত তাঁকে এক নামে চেনে। তাঁর ছবিকে কদর করে।

ঠোঁটকাটা আনুষ্কা শর্মা করণ জোহরে জনপ্রিয় শো ‘কফি উইথ করণ’তে এসে বিস্ফোরণ ঘটালেন। কোনও রকম দ্বিধাদ্বন্দ্ব না করেই আনুষ্কা বলে ওঠেন, ‘করণ মাঝে মাঝে এমনভাবে আমার শরীর ছোঁয়, যে আমি অস্বস্তিতে পড়ে যাই।’ কিন্তু প্রশ্ন হল, আনুষ্কা হঠাৎই করণের মুখোশ খুলতে গেলেন কেন?

শুরুটা করেছিলেন করণ নিজেই। ‘কফি উইথ করণ’ মূলত চ্যাট শো। নানা বিষয়ে আলোচনা হয়। মজা করা হয় এই শোয়ে। সেই শোয়ে আনুষ্কার সঙ্গে এসেছিলেন ক্যাটরিনা কাইফ। দুই অতিথি পাশাপাশি বসে সোফায়। এমন সময়ে করণ বলে উঠলেন, আনুষ্কার প্রতি তিনি দুর্বল এবং ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিটার সময়ে করণ খুবই দুর্বল হয়ে পড়েছিলেন অনুষ্কার উপরে। এ কথা স্বীকার করতে দ্বিধা নেই এই পরিচালকের।

কিন্তু করণ তখনও জানতেন না আনুষ্কার প্রতি দুর্বল— এই স্বীকারোক্তি করে তিনি আগুনে হাত দিয়েছেন। আনুষ্কা পাল্টা জবাবে জানান, ‘খুবই দুঃখিত, তবুও বলতে বাধ্য হচ্ছি, আমি করণের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির মামলা করতে যাচ্ছিলাম।’

আনুষ্কার এ হেন বক্তব্যের পরে করণ হতভম্ব হয়ে যান। আনুষ্কার পাশে বসা সুন্দরী ক্যাটরিনার হালও তখন একই। ভাবটা এরকম, ‘কী বলছেন আনুষ্কা!’ আনুষ্কা এবার ক্যাটরিনার দিকে তাকিয়ে বলেন, ‘জানো, করণ মাঝে মাঝে এমন ভাবে আমার শরীর স্পর্শ করে যে, আমি অস্বস্তিতে পড়ে যাই।’ ক্যাটরিনা বিভ্রান্ত। তিনি আগুন নেভানোর চেষ্টা শুরু করেন। আনুষ্কার বাউন্সার সামলানোর চেষ্টা করেন করণও। বলেন, ‘আরে আমি তো তোমার সঙ্গে মজা করি।’

ক্যাটরিনা প্রসঙ্গ বদলানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু আনুষ্কা যে ছেড়ে কথা বলার পাত্রীই নন। তিনি আবারও বোমা ফাটান। বলে ওঠেন, ‘এমনকী জ্যাকুলিনও আমাকে একবার একই কথা বলছিল। মণীষ মালহোত্রের পার্টিতে গিয়েও তুমি জ্যাকুলিনের সঙ্গে একই কাজ করেছ।’ কথা শেষ করতে না দিয়ে করণ বলে ওঠেন, ‘আমি অস্বস্তিকর ভাবে জ্যাকুলিনের শরীরে হাত দিয়েছি, তাই তো?’ আনুষ্কা বলে ওঠেন, ‘হ্যাঁ।’

পরিস্থিতি বেগতিক দেখে ক্যাটরিনা এ বার কোমর বেঁধে আসরে নেমে পড়েন। বলে ওঠেন, ‘শোনো, আইনি ব্যাপার-স্যাপার নিয়ে পরে আলোচনা করা যাবে। অন্য কোনও শোয়ে আমরা এই সব নিয়ে আবারও আলোচনা করব। আমি তোমাদের দু’ জনকেই ভালবাসি। তোমাদের দু’ জনের কোনও ক্ষতি হোক, এটা আমি চাই না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*