শারীরিক প্রতিবন্ধী ছেলেদের মেরে নিজেও আত্মহত্যা করলেন মা

হাঁটার ক্ষমতাও ছিল না, সম্পূর্ণভাবে বাড়িতেই বন্দি থাকতে হত তাঁদের। প্রায় ২০ বছর ধরে দুই ছেলেকে বিভিন্ন চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যেতেন রাধাম্মা, তবে ফল হয়নি কিছুই
মানসিকভাবে ঠিক কতটা বিপর্যস্ত হয়ে পড়লে এক মা তাঁর নিজের ছেলেদের মেরে ফেলে তারপর নিজেও আত্মঘাতী হতে পারেন, সেটা বেঙ্গালুরুর রাধাম্মার গল্প শুনলেই বোঝা যায়।

৫০ বছর বয়সি ডি রাধা ওরফে রাধাম্মা বেঙ্গালুরুর ইলেকট্রনিক্‌স সিটি এলাকায় থাকতেন তাঁর দুই ছেলে, ২৫ ও ২৮ বছর বয়সি হরিশ ও সন্তোষকে নিয়ে। তাঁরা দু’জনেই ছিলেন শারীরিক প্রতিবন্ধী।

হাঁটার ক্ষমতাও ছিল না, সম্পূর্ণভাবে বাড়িতেই বন্দি থাকতে হত তাঁদের। প্রায় ২০ বছর ধরে দুই ছেলেকে বিভিন্ন চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যেতেন রাধাম্মা, তবে ফল হয়নি কিছুই। শহরেই ছোট দু’টি বাড়ি ভাড়া দিয়েছিলেন তিনি, তার আয় থেকেই চলত সংসার। সম্প্রতি মানসিকভাবে এতটাই বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন যে প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছিলেন।

গত শনিবার তাঁদের বাড়ির দরজা কিছুটা খোলা থাকায় প্রতিবেশীরাই তিনজনকে মৃত অবস্থায় খুঁজে পান। পরে জানা যায়, খাবারে বিষ মিশিয়ে তা ছেলেদের খাইয়ে, তারপর নিজেও সেই খাবারই খেয়ে আত্মঘাতী হন রাধাম্মা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *