অবশেষে হাত বাড়িয়ে দিলেন সৌদি বাদশাহ! | পড়ুন বিস্তারিত ...

অবশেষে হাত বাড়িয়ে দিলেন সৌদি বাদশাহ!

আসন্ন গালফ সহযোগী কাউন্সিল (জিসিসি) সম্মেলনে কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন সংস্থাটির প্রধান ও সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান। এ ঘটনার মধ্য দিয়ে বাদশাহ সালমান চলমান সংকট নিরসনে কাতারের দিকে হাত বাড়িয়ে দিলে বলে ধারণা করা হচ্ছে।আল-জাজিরার খবরে বলা হয়, আসছে ৯ ডিসেম্বর সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদে জিসিসি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। তবে সম্মেলনের কাতারের আমির যোগ দেবেন কি না তা এখনো নিশ্চিত নয়।

সৌদি আরব এমন একসময় কাতারকে আমন্ত্রণ জনালো যার ঠিক একদিন আগে বিশ্ব তেল রপ্তানিকারক দেশগুলোর সংগঠন- ওপেক থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে কাতার। সৌদি অরবের এ আমন্ত্রণকে বিশ্লেষকরা কাতারের বিজয় হিসেবেই দেখছেন।কাতারের রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থা কিউএনএ বলছে, কাতারের আমির বার্তাটি গ্রহণ করেছেন। তবে তিনি সৌদিতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জিসিসি সম্মেলনে যাবেন কি না তা জানা যায়নি।

কবিরাজ: তপন দেব । নারী-পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ওষুধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

২০১৭ সালের জুনে ‘সন্ত্রাসবাদে মদদ’ দেয়ার অভিযোগে কাতারের ওপর অবরোধ আরোপ করে সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের কযেকটি দেশ। যা এখনো কিছুটা বলবৎ আছে। যদিও মিত্র কয়েকটি দেশের সহযোগিতায় সেই সংকট অনেকটাই কাটিয়ে উঠেছে মধ্যপ্রাচ্যের ছোট্ট এই দ্বীপ রাষ্ট্র।

খাসোগিকে নিয়ে মার্কিন কংগ্রেস-সিআইএ মুখোমুখি:: সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগির হত্যার ঘটনায় পরস্পর বিপরীত বার্তা নিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন ও কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানাতে দেশটির কংগ্রেসের মুখোমুখি হচ্ছেন সিআইএ প্রধান জিনা হাসপেল। মঙ্গলবার তিনি সিনেট নেতাদের বিভিন্ন তথ্য জানাবেন। বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, খাসোগি হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে গত সপ্তাহে আনুষ্ঠানিক ব্রিফিং করে মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। কিন্তু তাতে জিনা উপস্থিত ছিলেন না। এ ঘটনায় কয়েকজন কংগ্রেসম্যান ক্ষিপ্ত হন। এজন্যই জিনার বক্তব্য জানতে চাওয়া হয়।

ভারতের পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র ইউনিটে পাকিস্তানি চর!

রুপির বিপরীতে নজিরবিহীন শক্তিশালী হয়ে উঠেছে টাকা

মন্ত্রীর প্রকাশ্যে প্রস্রাবের ছবি ভাইরাল, বললেন ‘পুরনো ঐতিহ্য’

আপনি কি সম্রাট শাহজাহানের এই কালো তাজমহল সম্পর্কে জানেন ?? এটিও…

এর আগে সিআইএ’র বরাত দিয়ে মার্কিন গণমাধ্যমগুলো জানায়, খাসোগি হত্যাকাণ্ডের অনুসন্ধানে সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমানের জড়িত থাকার ইঙ্গিত রয়েছে। কারণ তার নির্দেশ ছাড়া এ হত্যাকাণ্ড প্রায় অসম্ভব ব্যাপার।কিন্তু মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বলছে, সৌদি যুবরাজের নির্দেশে এ হত্যাকাণ্ড হয়েছে, এমন কোনো প্রমাণ তাদের হাতে নেই। একই ধরনের কথা বলেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও।

কবিরাজ: তপন দেব । নারী-পুরুষের সকল জটিল ও গোপন রোগের চিকিৎসা করা হয়। দেশে ও বিদেশে ওষুধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০ (সময় সকাল ৯ – রাত ১১ )

প্রসঙ্গত, সৌদি রাজতন্ত্রের কড়া সমালোচক সাংবাদিক জামাল খাসোগি গত ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলের সৌদি দূতাবাসে গিয়ে নিখোঁজ হন। এরপর উদ্ধার হওয়া অডিও ও ভিডিও রেকর্ডের বরাত দিয়ে তুরস্কের সরকার জানায়, সৌদি দূতাবাসেই তাকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় নিজেদের সম্পৃক্ত থাকার কথা প্রথমে অস্বীকার করেছিল রিয়াদ। অবশেষে ঘটনার ১৭ দিন পর আন্তর্জাতিক চাপের মুখে খুনের দায় স্বীকারে বাধ্য হয় সৌদি আরব। তবে খাসোগির মৃত্যুর কথা জানালেও লাশের বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু বলা হয়নি।

তুর্কি প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহ রোববার এক প্রতিবেদনে জানায়, সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করার কিছুক্ষণের মধ্যেই খাসোগিকে হত্যা করা হয়। এরপর লাশ টুকরো টুকরো করে কনস্যুলেটের পাশ্ববর্তী সৌদি কর্মকর্তাদের বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর লাশের টুকরোগুলো পাঁচটি স্যুটকেসে ভরে সৌদি নিয়ে যাওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*